করোনার ভুয়া প্রতিবেদন দেওয়া হাসপাতাল মালিক সাহেদের অস্ত্র মামলায় যাবজ্জীবন

কামরান রেজা চৌধুরী
ঢাকা
2020-09-28
Share
200928_Shahed-Verdict_1000.jpg করোনাভাইরাস চিকিৎসার নামে প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে (বাম থেকে দ্বিতীয়) সাতক্ষীরার একটি সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব। ১৫ জুলাই ২০২০।
[ফোকাস বাংলা]

করোনাভাইরাস পরীক্ষার ভুয়া প্রতিবেদন দেওয়া রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে অস্ত্র মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে ঢাকার একটি আদালত।

সোমবার দুপুরে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলার রায় ঘোষণা করেন ঢাকা মহানগরের এক নম্বর স্পেশাল ট্রাইব্যুনালের বিচারক কেএম ইমরুল কায়েশ।

এক ডজনের বেশি মামলা হলেও সাহেদের বিরুদ্ধে এটিই প্রথম রায়।

সাহেদের বিরুদ্ধে রায় এমন দিনে দেয়া হলো যেদিন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের শোকে সুপ্রিমকোর্ট ও হাইকোর্টের সকল কার্যক্রম স্থগিত ছিল।

এদিকে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ভুয়া প্রতিবেদন দেওয়া আরেক হাসপাতাল জেকেজি’র মালিক ডা. আরিফ চৌধুরী ও তাঁর স্ত্রী ডা. সাবরিনা আরিফের বিচার চলছে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আবু আব্দুল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, আদালত বলেছেন যে, রাষ্ট্রপক্ষ সন্দেহাতীতভাবে সাহেদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণ করতে পেরেছে। তাই, তাঁকে সর্বোচ্চ সাজা দিয়েছেন আদালত।

তবে সাহেদের আইনজীবী মো. মনিরুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, “অতি অল্প সময়ে বিচারটি শেষ করা হলো। মাত্র আট কর্মদিবসে রায় ঘোষণা করা হলো। আমরা ন্যায়বিচার পেলাম না। এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে।”

কে এই সাহেদ?

গত মার্চে বাংলাদেশে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য দলে দলে রোগীরা দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভিড় করতে থাকেন।

যে কয়েকটি হাসপাতাল করোনাভাইরাস রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে এগিয়ে আসে সেগুলোর মধ্যে রিজেন্ট ছিল অন্যতম। সরকারি দলের নেতা সাহেদ ওই হাসপাতালের মালিক।

রোগীদের সেবা দেয়ার জন্য রিজেন্টের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তখনকার মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ।

কিছু সংবাদ মাধ্যমে রিজেন্টে হাসপাতালের অনিয়ম নিয়ে প্রতিবেদন প্রচারিত হওয়ার পর গত জুলাই মাসে ওই হাসপাতালে অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। এই ঘটনার পর পালিয়ে যান সাহেদ।

এ ঘটনায় বাদী হয়ে সাহেদসহ ১৭ জনের নামে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করে র‌্যাব। মামলার নয় দিনের মাথায় ১৫ জুলাই সাতক্ষীরা থেকে গ্রেপ্তার হন সাহেদ।

সাহেদকে নিয়ে ১৮ জুলাই উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকায় তাঁর কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে একটি পিস্তল ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার করে গোয়েন্দা পুলিশ। মামলা হয় অস্ত্র আইনে।

৩০ জুলাই সাহেদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। সোমবার এই অস্ত্র আইনের মামলার রায় ঘোষণা করা হলো।

পুলিশের হিসেবে, উত্তরা পশ্চিম থানায় ১৩টি সহ সাহেদের বিরুদ্ধে সারা দেশে অর্ধ শতাধিক মামলা রয়েছে।

এছাড়া ২০১০ সালে চেক জালিয়াতির একটি মামলায় ঢাকার একটি আদালত সাহেদকে ছয় মাসের সাজা দিলেও এতদিন তাঁর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি পুলিশ।

করোনায় মারা গেলেন অ্যাটর্নি জেনারেল

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। রোববার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে তিনি মারা যান। তাঁর ছেলে ও সাংবাদিক সুমন মাহবুব সাংবাদিকদের জানান, ৪ সেপ্টেম্বর থেকে তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

তাঁর সম্মানে সোমবার উচ্চ আদালতে কোনো বিচারকার্য হয়নি।

সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণে জানাজা শেষে তাঁকে মিরপুরে বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।

সোমবারের মন্ত্রীসভায় তাঁর ‍মৃত্যুকে ‘দেশের জন্য বিরাট ক্ষতি’ বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রীসভায় শোকপ্রস্তাব গৃহীত হয়।

করোনাভাইরাসে মৃত্যু ৫ হাজারের ওপর

বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হন গত ৮ মার্চ আর এ রোগে দেশে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ১৮ মার্চ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, এ পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন লাখ ৬০ হাজার ৫৫৫ জন, মৃত্যু হয়েছে পাঁচ হাজার ১৯৩ জনের।

এদিকে এখন পর্যন্ত কক্সবাজারে মোট ২৫১ জন রোহিঙ্গা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও এ রোগে আট শরণার্থীর মৃত্যু হয়েছে বলে বেনারকে জানিয়ছেন অতিরিক্ত শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোহাম্মদ সামছু-দ্দৌজা।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সোমবার বেনারকে জানান, “আগামী শীত মৌসুমে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আরও বাড়তে পারে বলে মতামত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। সেকারণে আমরা এব্যাপারে প্রস্তুতি নিচ্ছি।”

যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাবে, এ পর্যন্ত সারা বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটি ৩২ লাখ ১৭ হাজারের বেশি মানুষ, মারা গেছেন নয় লাখ ৯৯ হাজারের বেশি।

মন্তব্য (0)

সব মন্তব্য দেখুন.

মন্তব্য করুন

নিচের ঘরে আপনার মন্তব্য লিখুন। মন্তব্য করার সাথে সাথে তা প্রকাশ হয় না। একজন মডারেটর অনুমোদন দেবার পর মন্তব্য প্রকাশিত হয়। বেনারনিউজের নীতিমালা অনুসারে প্রয়োজানে মন্তব্য সম্পাদনা হতে পারে। প্রকাশিত কোনো মতামতের জন্য বেনারনিউজ দায়ী নয়। অন্যের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন এবং বিষয়বস্তুর সাথে প্রাসঙ্গিক থাকুন।